সম্পর্ক নষ্ট হওয়ার অন্তরালে একটিমাত্র জনিস জড়িত থাকে সেটি প্রায় অনেকেই জানে কিন্তু কখনো এই ছোট বিষয়টি নিয়ে ভাবে না বলেই সম্পর্ক নষ্ট হয়ে যায় ।

একটি সম্পর্ক কখনো একদিনে গড়ে ওঠে না । অল্প অল্প সময়ে ধীরে ধীরে একটি সম্পর্ক গড়ে ওঠে কিন্তু এই সম্পর্কগুলো টিকিয়ে রাখতে আমাদের প্রতিনিয়ত লড়ে যেতে হয় । আমরা যেমন অন্য মানুষের সাথে সম্পর্ক গড়ে তুলি তেমন কিছু মানুষ আছে যারা দায়িত্ব নিয়ে সম্পর্ক ভাঙ্গার কাজ করে চলেছে । তাই আমারা এদের থেকে সবসময় সাবধান থাকি । সবকিছু মেনে চলার পরেও দিনশেষে আমরা আমাদের প্রিয় মানুষটিকে হারায় আমাদের নিজের ভুলের কারনে । 

প্রতিটি সম্পর্ক নষ্ট হওয়ার মূলে থাকে অর্থ বা টাকা । হ্যাঁ শুনতে অবাক লাগলেও এটাই সত্যি । এটি ছাড়াও অন্য কারন থাকতে পারে তবে সেটা খুব কম অন্য কারন বশত সম্পর্ক নষ্ট হলে সেটির অধিকাংশ ক্ষেত্রেই সমাধান করা যায় । কিন্তু টাকা কারনে সম্পর্ক নষ্ট হলে সেটি আর আগের অবস্থায় ভালো করা সম্বভ হয় না । এবার দেখে নেওয়া যাক কিভাবে টাকা আমাদের সম্পর্ক নষ্টে মূখ্য ভূমিকা রাখে - 


আপনার একজন বন্ধু বা বান্ধবি আপনার থেকে টাকা ধার চাইলো আপনার খুব পছন্দের হওয়ায় আপনি কিছু না বুঝে টাকা দিয়ে দিলেন । আপনি শুনতে পারেন এখানে বিপত্তি কোথায় ? হ্যা আছে এবার পরের কথাটি শুনলে বুঝতে পারবেন । সে আপনাকে বলেছিলো এক বা দুই দিন পরে আপনার টাকা আপনাকে ফেরত দিয়ে দেবে । কিন্তু আপনি দেখলেন ৩য় দিন তার ফোন বন্ধ এবং সে তার মোবাইল পরিবর্তন করে ফেলেছে । এবার বলুন আপনার কেমন লাগবে, যে গতকাল আপনার খুব প্রিয় ছিলো আজ মনে হচ্ছে তাকে শেষ করে ফেলি । এই অনুভূতি হওয়াটাই স্বাভাবিক । তবে এমন কিছু করা যাবেই না ।

অথবা, সে আপনার সাথে দেখা করছে কিন্তু দু দিন থেকে ১০ দিন হয়ে যাচ্ছে সে আপনার টাকা ফেরত দিচ্ছে না তখনও আপনার একই ভাবে খারাপ লাগেবে । এক পর্যায়ে আপনাদের সম্পর্ক খারপ হয়ে যাবে । এমনকি দুজনের মধ্যে শত্রুতাও হতে পারে অসম্বভ কিছু না । 

তাই সম্বভ হলে টাকা ধার দেওয়া বা নেওয়া থেকে বিরত থাকুন এটাই সেরা সমাধান । এখানে একটা প্রশ্নের সৃষ্টি হয়, তবে কেউ বিপদে পরলে কি সাহায্য করবো না ? হ্যাঁ কেনো করবেন না আপনার সামর্থ থাকলে অবশ্যই করবেন । খুব কাছের মানুষ হলে সাহায্য করতেই পারেন, তবে টাকার পরিমান কম হলে ধার না দিয়ে এমনিতেই দিতে পারেন , যদি সে আপনার প্রকৃত ভালোবাসার ব্যাক্তি হয়ে থাকে তবে সেটা এমনিতেই ফেরত পাবেন ।

টাকা নিয়ে লেনদেন করার আগে কিছু মানুষকে ভালো করে যাচাক করে নিবেন
জীবনে ভন্ড বন্ধু কিংবা আত্মীয়ের সঙ্গে সাক্ষাৎ হয়নি এমন মানুষ খুঁজে পাওয়া দুষ্কর। প্রত্যেক মানুষই তাঁর নানা রূপ, চরিত্র নিয়ে ধরা দেন আমাদের কাছে। সকলেই প্রায় মিছরির ছুরি হয়ে উঠতে চেষ্টা করেন। কিন্তু মনে মনে সব সময়ই প্যাঁচ কষছেন। সুযোগ বুঝে প্রয়োগ করেন। ইদানিং কালে প্রায় সবার মধ্যেই মিথ্যে কথা বলার প্রবণতা খুব বেশি। বড় থেকে ছোট সকলেই। নিজের খুঁত দেখাতে কেউ মোটেই চায় না। নিজের কার্যসিদ্ধির জন্যে যদি বন্ধু আত্মীয়কে ঝামেলায় ফেলতে হয় তাতেও রাজি। কিন্তু নিজের কাজ আগে ঠিকমতো হওয়া দরকার। নিজের কার্যসিদ্ধির জন্য খুন করতেও হাত কাঁপে না মানুষের।  ভন্ডদের চেনাই কিন্তু সবচেয়ে কঠিন কাজ। কারণ এঁরা সব সময় ভালোমানুষের মুখোশ পরে থাকেন।
ভালো ভালো কথা বলেন। চারপাশে একটা মিথ্যে পরিচয় তৈরি করতে এঁরা সিদ্ধহস্ত। তবে আপনি যখন এমন মানুষকে সঠিক চিনতে পারবেন তখন কিছুতেই তাঁদের বুঝতে দেবেন না ।