পদ্মা সেতু (About Padma Bridge In Bangladesh)

পদ্মা সেতুর প্রথম স্প্যানটি বসানো হয় কবে ?
উত্তরঃ ২০১৭ সালের ৩০ সেপ্টেম্বর
🕳️ শেষ/৪১ তম স্প্যানটি বসানো হয় কোথায় ?
উত্তরঃ ১২ ও ১৩ নম্বর খুটির উপরে
🕳️ সেতুর মোট দৈর্ঘ্য কত ?
উত্তরঃ ৯.৩০ কি.মি .(৩. ১৫ কি.মি . সংযোগ সড়কসহ)
🕳️ শুধু সেতুটির দৈর্ঘ্য কত?
উত্তরঃ ৬ .১৫ কি.মি .
🕳️ সংযোগকারি স্থানসমূহ কি কি ?
উত্তরঃ মুন্সিগঞ্জের মাওয়া এবং শরিয়তপুরের জাজিরা।
🕳️ যান চলাচলের জন্য খুলে দেওয়া হবে কবে?
উত্তরঃ ২০২১ সালের ডিসেম্বরে।
🕳️ ৪১ তম স্প্যান বসে কবে ?
উত্তরঃ ১০ ডিসেম্বর ২০২০
🕳️ মোট স্প্যান কতটি ?
উত্তরঃ ৪১ টি
🕳️ প্রতিটি স্প্যানের দৈর্ঘ্য কত ?
উত্তরঃ ১৫০ মিটার।
🕳️ প্রকল্পের সার্বিক অগ্রগতি কতভাগ?
উত্তরঃ ৮২.৫%
🕳️ সংযোগ স্থাপন করে কতটি জেলার সাথে?
উত্তরঃ মোট ২৯ টি জেলার সাথে ,দক্ষিন ও দক্ষিন পশ্চিমের ২১ টি জেলার সাথে।
🕳️ মোট পিলার কতটি ?
উত্তরঃ ৪২ টি
🕳️ ৪১ টি স্প্যান বসাতে সময় লাগে কতদিন?
উত্তরঃ ৩ বছর ২ মাস ১০ দিন।
🕳️ প্রথম স্প্যানটি বসানো হয় কোথায়?
উত্তরঃ ৩৭ ও ৩৮ নম্বর খুটির/পিলারের উপর

পদ্মা সেতু সম্পর্কিত কিছু প্রয়োজনীয় তথ্যঃ 

Necessary Information About Padma Bridge

◼️ পদ্মা সেতুর সংযোগ সড়ক দুই প্রান্তে (জাজিরা ও মাওয়া) ১৪ কিলোমিটার।
◼️ পদ্মা সেতু প্রকল্পে নদীশাসন হয়েছে দুই পাড়ে ১২ কিলোমিটার।
◼️ পদ্মা সেতুর কাজ শুরু হয়েছিলো - ২০১৪ সালের ডিসেম্বরে
◼️ প্রতিটি স্প্যানের ওজন -৩২০০ টন
◼️ পদ্মা সেতু প্রকল্পে মোট ব্যয় (মূল সেতুতে) ৩০ হাজার ৭৯৩ কোটি ৩৯ লাখ টাকা।
◼️ পদ্মা সেতুর শেষ স্প্যান বসানো হয় যে দিবসে-বিশ্ব মানবাধিকার দিবস
◼️ পদ্মা সেতুর ভায়াডাক্ট পিলার ৮১টি।
◼️ পদ্মা সেতুর প্রকল্পের নাম ‘পদ্মা বহুমুখী সেতু প্রকল্প’।
◼️ এর আগে দীর্ঘতম সড়ক সেতু ছিলো-যমুনা সেতু
◼️ বাংলাদেশের দীর্ঘতম রেল সেতু -হার্ডিঞ্জ ব্রিজ
◼️ পদ্মা সেতুর ধরন দ্বিতলবিশিষ্ট। এই সেতু কংক্রিট আর স্টিল দিয়ে নির্মিত হচ্ছে (যা বিশ্বে প্রথম)।
◼️ পদ্মা সেতু নির্মাণে চুক্তিবদ্ধ কোম্পানির নাম চায়না রেলওয়ে গ্রুপ লিমিটেড এর আওতাধীন চায়না মেজর ব্রিজ কোম্পানি লিমিটেড।
◼️ পদ্মা সেতু প্রকল্পে কাজ করছে প্রায় চার হাজার মানুষ।
◼️ পানির স্তর থেকে পদ্মা সেতুর উচ্চতা রয়েছে ৬০ ফুট।
◼️ পদ্মা সেতুর পাইলিং গভীরতা ৩৮৩ ফুট।
◼️ বাংলাদেশের দীর্ঘতম সড়ক সেতু-পদ্মা সেতু
◼️ পদ্মা সেতুর ভায়াডাক্ট ৩ দশমিক ১৮ কিলোমিটার।
◼️ পদ্মা সেতুর মোট পিলারের সংখ্যা ৪২টি, স্প্যান ৪১টি।
◼️ প্রতি পিলারের জন্য পাইলিং হয়েছে ৬টি। তবে মাটি জটিলতার কারণে ২২টি পিলারের পাইলিং হয়েছে ৭টি করে।
◼️ নদীর উপর নির্মিত বিশ্বের প্রথম দীর্ঘতম সেতু-পদ্মা সেতু
◼️ পদ্মা সেতুতে থাকবে গ্যাস, বিদ্যুৎ ও অপটিক্যাল ফাইবার সংযোগ পরিবহন সুবিধা।
◼️ পদ্মা সেতুতে রেললাইন স্থাপন হচ্ছে স্প্যানের মধ্য দিয়ে।
◼️ পদ্মা সেতুর মোট পাইলিংয়ের সংখ্যা ২৮৬টি।
◼️ পদ্মা সেতুর নির্মাণকাজ শেষ হবে ২০২১ সালের ডিসেম্বরে।
◼️ পদ্মা সেতুর প্রস্থ হবে ৭২ ফুট, এতে থাকবে চার লেনের সড়ক। মাঝখানে রোড ডিভাইডার।
◼️ পদ্মা সেতুর দৈর্ঘ্য ৬ দশমিক ১৫ কিলোমিটার।


বাংলাদেশের জাতীয় পতাকা নিয়ে কিছু তথ্য (About the national flag of Bangladesh)

বাংলাদেশের জাতীয় পতাকার ডিজাইনার বা জাতীয় পতাকার নকশা কে তৈরি করেন - কামরুল হাসান
জাতীয় পতাকার আকার - ১০:৬
 
সর্বপ্রথম বাংলাদেশের জাতীয় পতাকা উত্তোলন হয় - ২ মার্চ ১৯৭১ সালে
 
জাতীয় পতাকার বিভিন্ন আকৃতি - 
🕳️ ভবনে ব্যবহারের জন্য পতাকার আকৃতি
১০ ফুট×৬ ফুট, 
৫ ফুট×৩ ফুট, 
২.৫ ফুট×১.৫ ফুট
🕳️ আন্তর্জাতিক ও দ্বিপাক্ষিক অনুষ্ঠানে ব্যবহারের জন্য টেবিল পতাকার মাপ 
১০ ইঞ্চি×৬ ইঞ্চি
🕳️ মোটর গাড়িতে ব্যবহারের জন্য বিভিন্ন আকৃতি
১৫ ইঞ্চি×৯ ইঞ্চি,
১০ ইঞ্চি×৬ ইঞ্চি
🕳️ পতাকার দৈর্ঘ্য,প্রস্থ ও মাঝের লালবৃত্তের ব্যাসার্ধের অনুপাত ৫:৩:১

🕳️ গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশের মনোগ্রামে কতটি তারকা চিহ্নিত থাকে?
উঃ ৪ টি
🕳️ বাংলাদেশের জাতীয় পতাকার মাপের অনুপাত কত?
উঃ ৫:৩
🕳️ বাংলাদেশের জাতীয় পতাকা কে সর্বপ্রথম উত্তোলন করেন?
উঃ আ.স.ম আব্দুর রব(পূর্ণ নাম- আবু সায়েদ মোহাম্মদ আব্দুর রব)
🕳️ বাংলাদেশের পতাকা প্রথম বারের মত উত্তোলন করা হয়?
উঃ কোথায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বটতলায়
🕳️ বাংলাদেশের রণ সংগীত এর রচিয়তা কে?
উঃ কাজী নজরুল ইসলাম
🕳️ বাংলাদেশের রাষ্ট্রীয় মনোগ্রামের ডিজাইনার কে?
উঃ এ এন সাহা
🕳️ বাংলাদেশের জাতীয় পতাকায় কোন কোন রং রয়েছে?
উঃ লাল ও সবুজ
🕳️ বাংলাদেশের জাতীয় পতাকার রূপকার কে?
উঃ কামরুল হাসান
🕳️ জাতীয় পতাকা উত্তোলন দিবস কত তারিখ?
উঃ ২ মার্চ
🕳️ কে একমাত্র উড়োজাহাজে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করতে পারেন?
উঃ রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রী
🕳️ বাংলাদেশের জাতীয় পতাকা কবে গৃহীত হয়?
উঃ ১৭ জানুয়ারি ১৯৭২
🕳️ বাংলাদেশের জাতীয় পতাকার সাথে মিল রয়েছে কোন দেশের জাতীয় পতাকার?
উঃ জাপানের
🕳️ বাংলাদেশের জাতীয় পতাকায় কয়টি রং আছে?
উঃ দুইটি
🕳️ মানচিত্র খচিত জাতীয় পতাকার নকশা তৈরি করেন কে?
উঃ শিব নারায়ণ দাস।
🕳️ বাংলাদেশের জাতীয় পতাকার রং কি?
উঃগাঢ় সবুজের মধ্যে লাল বৃত্ত

বাংলাদেশে উপজাতিদের বাসস্থান (Tribes in Banglades)

চাকমা – রাঙ্গামাটি ও খাগড়াছড়ি
সাঁওতাল – রাজশাহী ও দিনাজপুর
রাখাইন – পটুয়াখালী※ পাংখো – বান্দরবান
গারো – ময়মনসিংহ
খুমি – বান্দরবান
মনিপুরী – সিলেট
তনচংগা – রাঙ্গামাটি
মুরং – বান্দরবানের গভীর অরণ্যে
কুকি – সাজেক ভেলী (রাঙ্গামাটি)
হুদি – নেত্রকোনা
খাসিয়া – সিলেট
ওরাও – বগুড়া, রংপুর
রনজোগী – বান্দরবানের গভীর অরণ্যে
মারমা – Cox’s bazar , বান্দরবান ও পটুয়াখালী
হাজং – ময়মনসিংহ ও নেত্রকোনা
রাজবংশী – রংপুর
টিপরা – খাগড়াছড়ি, পার্বত্য চট্টগ্রাম
লুসাই – পার্বত্য চট্টগ্রাম

বাংলাদেশের গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনাঃ

◻️ জাতীয় স্মৃতিসৌধ - সাভার
◻️ জাতীয় সংসদ ভবন - শেরে বাংলা নগর, ঢাকা
◻️ মুজিবনগর স্মৃতিসৌধ - মেহেরপুর জেলার মুজিবনগর
◻️ রাজারবাগ স্মৃতিসৌধ - গগনবাড়ি, সাভার
◻️ শহীদ বুদ্ধিজীবী স্মৃতিসৌধ - ঢাকা মিরপুর
◻️ স্বাধীনতা স্মৃতিস্তম্ভ - ঢাকা সেনানিবাস
◻️ কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার - ঢাকা মেডিকেল কলেজ প্রাঙ্গণ

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়

◻️ স্বাধীনতা সংগ্রাম - ফুলার রোড,  ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়
◻️ অপরাজেয় বাংলা - ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কলাভবন
◻️ রাজু ভাস্কর - ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় টিএসসি চত্বর
◻️ স্বামী বিবেকানন্দ - জগন্নাথ হল, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়
◻️ মা ও শিশু - মুজিব হল, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়
◻️ নারী, শিশু ও পুরুষ - ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়
◻️ কৃষক পরিবার - জাতীয় জাদুঘর প্রাঙ্গণ, ঢাকা
◻️ ক্যাকটাস - ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়
◻️ দোয়েল চত্বর - ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কার্জন হল
◻️ জয় বাংলা জয় তারুণ্য - ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়
◻️ স্বোপার্জিত স্বাধীনতা - ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় টিএসসি চত্বর
◻️ শান্তির পাখি - টি এস সি, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়
◻️ বেগম রোকেয়া ভাস্কর্য - রোকেয়া হলে, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়

◻️ সংশপ্তক - জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়
◻️ সর্বোচ্চ শহীদ মিনার - জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়
◻️ অমর একুশে - জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়

◻️ স্মরণ - চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়
◻️ স্মারক - চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যায়

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়

◻️ একাত্তরের গণহত্যা ভাস্কর - জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়

◻️ মুক্তবাংলা - ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়

কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়, ময়মনসিংহ

◻️ সোনার বাংলা - কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়, ময়মনসিংহ

পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়

◻️ জয় বাংলা - পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়

খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়

◻️ অদম্য বাংলা - খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়
◻️ দুর্বার বাংলা - খুলনা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়

◻️ সাবাস বাংলাদেশ - রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়
◻️ গোল্ডেন জুবিলী টাওয়ার - রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়
◻️ বিদ্যার্ঘ - রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়

৭১

◻️ পতাকা ৭১ - মুন্সিগঞ্জ
◻️ প্রত্যয় ৭১ - মাওলানা ভাসানী বিশ্ববিদ্যালয়
◻️ চেতনা ৭১ - কুষ্টিয়া
◻️ বিজয় ৭১ - কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়
◻️ অপরাজেয় ৭১ - ঠাকুরগাঁও
◻️ প্রবাহমান ৭১ - মাদারীপুর
◻️ মৃত্যুঞ্জয়ী ৭১ - শ্রীমঙ্গল, মৌলভীবাজার
◻️ অন্ধুরিত যুদ্ধ ৭১ - মুন্সিগঞ্জ
◻️ জয়তা ৭১ - ইডেন মহিলা কলেজ