ads-here

How to do Unitary Method very easily ? │ঐকিক নিয়মের অংক খুব সহজে কিভাবে করতে পারবেন

How to do Unitary Method very easily ? Or easy solution of Unitary Method ...

ঐকিক নিয়ম খুব সহজে করতে চান ?
সাধারণত ৩য় শ্রেণী থেকে আপনি এই নিয়মের সাথে পরিচিত । কিন্তু আপনি ভাবছেন ৩য় শ্রেণীর ঐকিক নিয়মের অংকগুলো কত সহজ ছিলো । তাহলে নিশ্চই ৩য় শ্রেণীতে যখন পড়তেন ঐকিক নিয়ম খুব দ্রুত করতেন । আপনার উত্তর হ্যাঁ হলে ঠিক আছে আর যদি না হয় তবে নিজেই ভেবে দেখুন তখন পারেন নি এখন কি করে পারবেন ।
অংক এমন একটি বিষয় যেটা না পারলে ক্লাস পরীক্ষায় ভালো ফলাফল হবে না ।  বোর্ড পরীক্ষায় ভালো ফলাফল হবে না, এখানেই শেষ নয় চাকরির পরীক্ষাতেও ভালো ফলাফল হবে না ।


আপনি এই পোস্ট'টি দেখে মনে করতে পারেন এখানে তো মাত্র একটি বা দুটি অংক আছে এখান থেকে কি শিখবো ।  যদি এটা ভেবে  থাকেন তবে শুনে নিন আপনি যদি অংক ঠিক করে বুঝতে পারেন তবে একটি থেকে আরো 100 টি অংক নিজেই করতে পারবেন আর যদি ভালোমতো বুঝতে না পারেন তবে 100 টি অংক খাতায় রেখে কি লাভ যেখানে বই খুললেই এরকম শত শত অংক পাওয়া যায় , কিন্তু এই শত অংকের মধ্যে আপনি কয়টা নিজে নিজে করতে পারবেন এটাই প্রধান বিষয় ।

শুধু ঐকিক নিয়ম নয় একটু বোঝার চেষ্টা করো অন্য সকল অংক গুলো আপনি সহজেই করতে পারবেন ।

ঐকিক নিয়মের কোন অংক গুলো চাকরির পরীক্ষায় খুব বেশি পরিমাণে আসে ?
+ একই কাজ দুইজন বা তিনজন কত দিনে করতে পারবে
+ দুজনে একত্রে করলে কত সময় লাগবে
+ নির্দিষ্ট সময়ে কাজ শেষ করতে কতজন শ্রমিক অতিরিক্ত লাগবে
+ খাবার কতদিন চলবে
+ কতদিনে খনন করতে পারবে
সাধারণত এই ধরনের অংক গুলি বেশি দেখা যায় তবে এ ছাড়াও অন্যান্য কিছু থাকতে পারে
অংকের কোন নির্দিষ্ট নিয়ম নেই অংক প্রয়োজন অনুসারে নিজের রূপ বদলায়



ঐকিক নিয়ম ভালোভাবে বুঝতে হলে আপনাকে বেশ কিছু কাজ করতে হবে -
১. শর্টকাট ব্যবহার করে অংক করা বন্ধ করুন
২. যে অংকটি করতে চান সেটা বিস্তারিত ভাবে সম্পন্ন করুন নিজে যে ভাবে ভালো বোঝেন সেভাবে করে নিন । সম্পূর্ণ অংক পারলে সংক্ষিপ্ত নিয়ম নিজেই করতে পারবেন ।
৩. ইংরেজি অংক প্রথমে বাংলায় অনুবাদ করে নিন এরপর সমাধান করুন মনে রাখবেন নিজের ভাষায় অংকটি বোঝার জন্য অনেক বেশি ভালো হয় একবার বুঝে গেলে আপনি ইংরেজি ভাষায় সহজেই করতে পারবেন।
৪. খুব বেশি বড় অংক হলে সেটা ছোট ছোট অংশ ভেঙে নিয়ে করতে হবে । এভাবে করলে আপনি অংকটি খুব ভালো করে বুঝতে পারবেন।
৫. সাধারণত চাকরির বইতে অংক গুলো যেভাবে সমাধান করা থাকে, এটি দেখে অনেকেই বুঝতে না পেরে ভয় পেয়ে যায়
৬. তাই বইয়ের সমাধান হুবহু করার দরকার নেই বই থেকে একটা প্রাথমিক ধারণা নিন পরে নিজের মত করে অংকের সমাধান ঢেলে সাজান । এভাবে করে নিলে আপনি খুব বেশি ভালো করে বুঝে যাবেন ।
৭. বিগত চাকরির প্রশ্ন সমাধান করার সময় অংকটি ইংরেজিতে থাকলে বাংলায় অনুবাদ করে নিন কারণ অংকটি যদি পড়ে আপনি বুঝতে না পারেন তবে সমাধান করবেন কিভাবে ।


বিভিন্ন সরকারি ও বেসরকারি ব্যাংক ও বিসিএস এর লিখিত পরীক্ষায় এই অংকটি মাঝে মধ্যেই আসে -

 
(Previous JOB Math - 01) 
6 men can complete a piece of work in 12 days. 8 women can complete the same piece of work in 18 days whereas 18 children can complete the piece of work in 10 days. For men 12 women and 20 children work together for 2 days. If only men were to complete the remaining work in 1 day how many men would be required totally ?  
 
বাংলা অর্থঃ ৬ জন পুরুষ একটি কাজ ১২ দিনে করে । ৮ জন মহিলা কাজটি ১৮ দিনে করে । ১৮ জন বালক ১০ দিনে ওই একই কাজ সম্পন্ন করে । ৪ পুরুষ ১২ জন মহিলা এবং ২০ জন বালক একত্রে ২ দিনে ঐ কাজ করে । বাকি কাজ ১ দিনে শেষ করতে কতজন পুরুষ দরকার ?  
 
এই ধরনের অংক থাকলে প্রথমেই যে কাজটি করতে হবে একদিনে একজন কত অংশ কাজ করে সেটি নির্ণয় করে নিতে হবে
Solution:

পরের অংশে দেখুন বলা হয়েছে ২ দিনে ৪ জন পুরুষ, ১২ জন মহিলা ও ২০ জন বালক এই কাজ করে 
মূলত ছাত্র-ছাত্রীদের কোন দোষ নেই পরীক্ষার অংক গুলোতে ভাষা পরিবর্তনের মাধ্যমে ছাত্র-ছাত্রীদের কনফিউশন করার চেষ্টা করা হয় এখানে অনেকে ভুল করে ফেলে । এজন্য পরীক্ষার হলে আপনাদের প্রথম করণীয় হওয়া উচিত হুট করে অংক শুরু না করে একটু ভালো করে পড়ে নেওয়া এবং সেই সাথে অংকে কি নির্ণয় করতে বলা হয়েছে সেটা ভালো করে বুঝে নেওয়া । যেমন এই অংকটি এই অংক টি শুরুই হয়েছে এখান থেকে আর প্রথম লাইনে যেগুলো দেওয়া আছে ওগুলো কিছু তথ্য । মূলত এখানে বের করতে হবে ৪ পুরুষ ১২ জন মহিলা ২০ জন বালক কাজটি ঠিক কতটুকু সম্পন্ন করেছে আর বাকি কাজ একদিনে শেষ করতে কত জন পুরুষ লাগবে ?


এজন্য আপনাকে কতটুকু কাজ বাকি আছে তার পরিমাণ বের করে নিতে হবে ।


এবার অবশিষ্ট কাজ করতে কতজন পুরুষ অতিরিক্ত লাগবে এর পরিমান নির্নয় করতে হবে ।

Important:  প্রয়োজনের সময় দ্রুত খুঁজে পেতে হলে পোষ্ট'টি শেয়ার করে আপনার ফেসবুক টাইমলাইনে সংরক্ষন করে নিতে হবে । পরে  আর খুঁজে পাবেন না  ।
Next Post Previous Post
No Comment
Add Comment
comment url